অর্থনীতি

দ্বিতীয় এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণ করবে সামিট

গ্যাস ও বিদ্যুতের ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে কাজ করছে সরকার। এরই অংশ হিসেবে কক্সবাজারের মহেশখালীতে দ্বিতীয় ভাসমান এলএনজি টার্মিনাল নির্মান করা হচ্ছে। সামিট গ্রুপের একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান ‘সামিট এলএনজি টার্মিনাল কোম্পানি’ ভাসমান টার্মিনালটি নির্মাণ করবে।

ভাসমান টার্মিনালটি প্রতি দিন ৫০০ মিলিয়ন ঘনফুট প্রাকৃতিক গ্যাস সরবরাহ করতে পারবে।

উল্লেখ, পুঁজিবাজারের তালিকাভূক্ত পাওয়ার খাতের কোম্পানি সামিট পাওয়ারের সঙ্গে আয়-ব্যয়ের কোনো সম্পর্ক নেই সামিট এলএনজি টার্মিনাল কোম্পানির।

আজ বুধবার সচিবায়লয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয় মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় মহেশখালীতে দ্বিতীয় এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণে সম্মতি দেওয়া হয়।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান জানান, কক্সবাজারের মহেশখালিতে সামিট কর্পোরেশন লিমিটেড কর্তৃক ৫০০ এমএমসিএফ ক্ষমতা সম্পন্ন দ্বিতীয় ভাসমান এলএনজি টার্মিনাল ‘ফ্লোটিং স্টোরেজ অ্যান্ড রিগ্যাসিফিকেশন ইউনিট’ স্থাপনের নেগোশিয়েশনের নীতিগত অনুমোদনের প্রস্তাবে কমিটি সম্মতি দিয়েছে।

তিনি জানান, নির্মাণ, মালিকানা ও পরিচালনার ভিত্তিতে নির্মিতব্য কেন্দ্রের প্রস্তাবটি বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দ্রুত সরবরাহ বৃদ্ধি (বিশেষ বিধান) আইন-২০১০ এর আওতায় আনা হয়েছে।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শুরুর দিকে এখানে নীতিগত অনুমোদন লাগে। সেই জন্য এখানে আনা হয়েছে। ১৫ বছর মেয়াদে তারা গ্যাস সরকারকে সরবরাহ করবে।

এদিকে নির্মাণে কতদিন লাগবে সেটা এখানে বলা হয়নি বলে জানান সচিব।তবে পেট্রোবাংলা সুত্র জানিয়েছে, রূপান্তরিত তরল গ্যাস (এলএনজি) টার্মিনাল নির্মাণের জন্য চূড়ান্ত চুক্তির পর ১৮ মাস সময় পাবে প্রতিষ্ঠানটি।

এছাড়া জি টু জি ভিত্তিতে কাতারের ‘র‌্যাসগ্যাস’ এর নিকট থেকে সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে এলএনজি ক্রয়ের নীতিগত অনুমোদনের সুপারিশ করেছে।

এদিকে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বুধবারের বৈঠকে ৭টি উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে সম্মতি দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে  কুয়েত ফান্ডের সহায়তায় তৃতীয় কর্ণফুলী সেতু নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ‘নিউ স্কোপ অব ওয়ার্কস’র আওতায় চার লেনের ৮ কি. মি. সংযোগ সড়ক ও কাঠামো নির্মাণের ক্রয় প্রস্তাবে অনুমোদনের সুপারিশ করা হয়েছে। ২৭০ কোটি ১১লাখ ৬৫ টাকায় কাজটি পেয়েছে ডাব্লিউএমসিবি ও মীর আকতার এবং খাদিম জয়েন্ট ভেঞ্চার।

সৌদি আরবের এমএএডিইএন এবং বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তির আওতায় প্রথম লটের ২৫ হাজার মেট্রিক টনের ডিএপি সার আমদানি করার প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছে কমিটি। প্রতি টনের দাম পড়বে ৩২৬ দশমিক ২৫ মার্কিন ডলার।

এদিকে তিতাস নদীর পুনঃখননে ৪ প্যাকেজের কাজ সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে করার অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। কাজটি করবে বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর প্রতিষ্ঠান  ডকইয়ার্ড অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্ক লিমিটেড। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকল্পটির এই অংশে খরচ হবে ১১৯ কোটি ৪৪ লাখ ১৬ হাজার টাকা।

ঢাকা ওয়াসার পানি শোধনাগার নির্মাণের ডিজাইন সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব আনার পর শেষ পর্যন্ত তা প্রত্যাহার করে নিয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগ।

গোপালগঞ্জে শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এবং নার্সিং ইনস্টিটিউট প্রকল্পে ৯ তলা ভবন নির্মাণ কাজের দর প্রস্তাব বিবেচনার জন্য সুপারিশ করেছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ১৬০ কোটি ১০ লাখ ২৪ হাজার টাকা। মীর আকতার ও ওয়াহিদ কন্সট্রাকশন সর্বনিম্ন দরদাতা হিসাবে কাজ পেয়েছে।

মানিকগঞ্জে ১০ তলা ভিত্তিসহ ৫ তলা হাসপাতাল ভবন নির্মাণ কাজের প্রস্তাবেও সম্মতি দিয়েছে মন্ত্রিসভা কমিটি। ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ার্স এই কাজ পেয়েছে। এর ব্যয় হবে ১৭৫ কোটি ১৯ লাখ ২৪ হাজার টাকা।

বেসরকারি খাতে মেসার্স এগ্রিকো ইন্টারন্যাশনাল প্রজেক্টস লিমিটেড কর্তৃক আশুগঞ্জ ৯৫ মেগাওয়াট গ্যাস ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মেয়াদ বৃদ্ধি ও বর্ধিত মেয়াদের জন্য ট্যারিফ অনুমোদনের প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছে ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

সম্পাদক:

বিপুল রায়হান

১৩/২ তাজমহল রোড, ব্লক-সি, মোহাম্মদপুর,ঢাকা-১২০৭, ফোন : 01794725018, 01847000444 ই-মেইল : info@jibonthekenea.com অথবা submissions@jibonthekenea.com

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত জীবন থেকে নেয়া ২০১৬ | © Copyright Jibon Theke Nea 2016

To Top