ওয়ারড্রোব

নেইল ট্রেন্ড ২০১৬

তানি নাওয়াজ

ভিন্ন ভিন্ন দেশে প্রায় সবকিছুতেই ভিন্ন ভিন্ন ট্রেন্ড থাকে। নেইল পলিশের ক্ষেত্রেও তা ভিন্ন নয়। ২০১৬ সালে প্রচুর নতুন নতুন নেইল আর্ট ট্রেন্ড শুরু হয়েছে। ১০০ কোট থেকে বিচ্ছু নখ পর্যন্ত। এখানে আপনাকে দেখাবো কিছু নতুন নেইল পলিশ ট্রেন্ড এবং তা কিভাবে আপনার নখে অনুকরণ করবেন। এছাড়াও আপনাকে দিচ্ছি আপনার নখের যতেœ কিছু টিপস।
বিভিন্ন স্টাইল ও ডিজাইন : ইউটিউবের “কিউটপলিশ” চ্যানেলটি সবধরনের নেইল আর্টের জন্য সবচেয়ে ভালো। সিজনাল থেকে প্রফেশনাল সব ধরনের নেইল আর্ট দেখায় চ্যানেলটি। তাদের সবচেয়ে নতুন ভিডিওটি হচ্ছে হ্যালোউইনের জন্য কিভাবে নেইলপলিশ করতে হয়। এছাড়াও তাদের চ্যানেলে আছে স্টেপলড নেইলস, স্ট্রাইপড নেইলস, ক্রেয়ন নেইলস ইত্যাদি ডিজাইন।
অবশ্য এ বছরের কঠিন কিছু নেইল আর্ট করা ট্রেন্ড হয়ে গিয়েছে যা করতে গেলে আপনার পার্লারে যাওয়া লাগবে। এর মধ্যে কিছু ডিজাইন আছে যা একই সাথে ভীষন কঠিন এবং জটিল। এরকম একটি হচ্ছে “ফারি নেইলস”, যেটি করতে পাখির পালক নখে গ্লু দিয়ে লাগানো লাগে। আরেকটি হচ্ছে স্কাল্পচারাল আই, যেটাতে সোয়ারোভস্কি পাথর দিয়ে চোখ বানিয়ে নখে লাগানো হয়। ডারটি নেইল লুক আরেকটি নতুন ট্রেন্ড যেটাতে কালো পলিশ লাগিয়ে সেটিকে অস্পষ্ট করা হয়। আরেকটি নতুন আকর্ষণীয় ট্রেন্ড হচ্ছে ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিউর করে নখে কালো ও লাল ফোঁটা দিয়ে ডিজাইন করা। একটি স্টাইলে নখকে রঙ করা হয় পাতার মতো করে, সবুজ ও রূপালী রঙ দিয়ে। আরেকটি ডিজাইন হচ্ছে “লেস নেইল ইফেক্ট”, যেটিতে দুইটি ভিন্ন রঙ দিয়ে করা হয় ডিজাইন।
যদি এরকম পাগলামি আপনার কম পছন্দ থাকে তাহলে কালার উইল থিওরি ব্যাবহার করতে পারেন। এই থিওরি অনুযায়ী ভিন্ন রকমের রঙ ভিন্ন রকমের স্কিন টোনকে স্যুট করে। এই থিওরি আবার ব্যবহার করতে পারেন নখ থেকে কাপড় চোপড় পর্যন্ত! স্কিন টোন কিছুটা ঠান্ডা হলে ব্যাবহার করতে পারেন নীল, সবুজ এবং রূপালীর মতো ঠান্ডা রঙ। এছাড়া স্কিন অনুযায়ী ব্যবহার করুন লাল, হলুদ এবং সোনালী। কালার উইল থিওরি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ইউটিউবের ক্যান্ডি জনসনের ভিডিও দেখতে পারেন।
জ্যামিতিক কিছু ডিজাইন এ বছর বেশ বিখ্যাত হয়েছে। এছাড়াও “ফ্রোজেন’ ছবিটির অনুকরণে করা নেইল আর্ট চলছে বেশ। নীল এবং সাদা দিয়ে ফ্রোজেন এর অনুকরণে করা হয়েছে স্নোম্যান নেইল আর্ট। গ্লিটার আবার ফ্যাশনে ফেরত এসেছে। অনেকেই গ্লিটার দিয়ে তাদের নেইলের পলিশ ফিনিশ করছেন। কিছু কিছু ট্রেন্ড রয়েছে আবার বড়দিনের অনুকরণে।
অনেক কিছুর মধ্যে নেইল আর্টের মধ্যে ট্রেন্ডি হয়েছে সলিড, ডিজাইনবিহীন কালার। নেভি ব্লু, পার্ল ওয়াইট, অ্যাপল রেড সহ অনেক প্লেইন কালার জনপ্রিয়তা পেয়েছে। আরো ডিজাইনের আইডিয়া পেতে দেখতে পারেন গুড হাউজকিপিং ওয়েবসাইটে।
টিপস : নেইল পলিশ দেওয়াটাই অনেকের কাছে ঝামেলাদায়ক। নেইল আর্ট তো আরো বেশি। তবে এখানে আমাদের কাছে কিছু টিপস রয়েছে যা আপনার নখকে রাখবে সুস্থ এবং আপনার ম্যানিকিউর নষ্ট করবে না।
* নখের চারপাশের চামড়ায় ভেসলিন দিন। এতে পরে পলিশ করলে সেটা মুছে ফেলা সহজ হবে।
* আপনি ডান বা বাম হাতি যেটিই হোন না কেন, যে হাত বেশি ব্যবহার করেন সেটিতে আগে রঙ মাখান। এই টিপটি যদিও মনে হবে সেরকম বড় কিছু না, তারপরও এই ছোট একটি টিপ আপনার নখকে দেখাতে পারে আরো সুন্দর করে।
* পলিশ করার আগে হাতের কাছে বরফ পানি রাখবেন। পলিশের পর হাত বরফ পানিতে ডোবালে আপনার নখ আরো তাড়াতাড়ি শুকাবে।
* আপনি যদি নেইল আর্টের সরঞ্জাম নেই বলে নেইল আর্ট না করেন তাহলে আপনি স্কচ টেপ এবং টুথপিক দিয়ে কাজ চালাতে পারেন। স্কচ টেপ দিয়ে ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিউর করতে পারবেন, আর টুথপিক দিয়ে ডিজাইন করতে পারবেন। টুথপিক আবার আপনি সরঞ্জাম যখন পাবেন তার জন্য ভালো অনুশীলন।
* যদি গ্লিটার ব্যবহার করতে পছন্দ করেন কিন্তু আপনি নিজের নখে গ্লিটার দিলে মনমত না হয়, তাহলে একটি স্পঞ্জ নিন। স্পঞ্জটির একটি কোনায় এমনভাবে গ্লিটার দিন যাতে মনে হয় যে গ্লিটার ছাড়া সেই কোনায় কিছু নেই, তারপর আপনার নখে পলিশ করুন। আপনি যদি গ্লিটারটিকে আরো বেশি সময় রাখতে চান তাহলে আপনার নখে একটি বেইজ কোট দিয়ে গ্লিটারটি দিন। যদি গ্লিটার নখ থেকে বের করা আপনার জন্য বেশি সমস্যা হয়, তাহলে আঠালো একটি বেইজ কোট ব্যবহার করেন। এতে পরে গ্লিটারটি মুছে ফেলা আপনার জন্য সহজ হবে।
নেইল আর্ট শুরু করার আগে আপনার বুঝতে হবে যে সবার আগে খেয়ালে লাখেবেন আপনার নখ ও হাতের স্বাস্থ্য। যদি আপনার হাতের কাজ অনেক থাকে বা বাচ্চাদের নিয়ে কাজ করেন, তাহলে আপনার খেয়ালে রাখতে হবে কোন নেইল শেপ ব্যবহার করবেন। যত বেশি লম্বা আপনার নখ, তত বেশি তা ভাঙ্গার সম্ভাবনা আছে। ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিউর এ ক্ষেত্রে একটি ভালো স্টাইল। আরেকটি পদ্ধতি হলো নখের সামনে আগে একটি লেয়ার দিয়ে তারপর পুরোটা রঙ করা। এতে আপনার নখ সহজে না ভাঙ্গার ব্যবস্থা হয়ে যাবে। আপনার হাত যাতে আপনার নেইল আর্টের মতোই ভালো হয় সেটার জন্য নিয়মিত লোশন ব্যবহার করুন। গরম পানিতে হাত রেখে হাতের ত্বক নরম রাখতে পারেন। মেকাপের সময় যেমন মুখের ত্বকের ভালো যতœ করা লাগে, তেমনি হাতেরও যতœ করতে হবে নেইল আর্ট করতে হলে। অনলাইনে নেইল আর্ট শেখার জন্য ভালো কিছু ওয়েবসাইট আছে যা দেখে আসতে পারেন।
২০১৬ সালের নেইল আর্টে কিছু মজার তথ্য : ক্রিস হেমসওয়ারথ, লুক হেমসওয়ারথ ও জ্যাক অ্যাফ্রন পলিশড মেন ক্যাম্পেইনের জন্য তাদের নিজেদের ডান হাতের একটি আঙ্গুলে নেইল পলিশ করেন। এটা করা হয় শিশুদের বিরুদ্ধে অত্যাচার থামাবার জন্য সচেতনতা বাড়াতে।
আরেকটি অদ্ভুত ট্রেন্ড ছিলো এ বছরে ইউটিউবারদের “১০০ লেয়ার” এর নেইল পলিশ। এতে নখ শিল্পীরা ১০০ টি পলিশের লেয়ার একের পর এক নখের উপর দেন।
অন্যদিকে মেক্সিকোতে একটি নতুন ট্রেন্ড হয়েছে যেটাতে নখে মৃত ছোট বিচ্ছু নখের পলিশে দেওয়া হয়।
অন্যান্য মেকাপের মতোই নেইল আর্টের সময় মনে রাখবেন যে আপনাকে কারো ট্রেন্ড অনুযায়ী নখ প্লিশ করতে হবে না, আপনি নিজেও তৈরী করতে পারেন নিজস্ব ট্রেন্ড। শুধু হাতের যতœ করার কথা মনে রাখলেই চলবে।

Views All Time
Views All Time
536
Views Today
Views Today
3
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

সম্পাদক:

বিপুল রায়হান

১৩/২ তাজমহল রোড, ব্লক-সি, মোহাম্মদপুর,ঢাকা-১২০৭, ফোন : 01794725018, 01847000444 ই-মেইল : info@jibonthekenea.com অথবা submissions@jibonthekenea.com

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত জীবন থেকে নেয়া ২০১৬ | © Copyright Jibon Theke Nea 2016

To Top