জাতীয়

সাঁওতাল হত্যা ও ধ্বংসলীলা

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতাল গ্রামে গুলি ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় কমপক্ষে তিনজন নিহত হওয়ার ঘটনার এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও এখনও কোন মামলা হয় নি। ভূমির অধিকার ফিরে পেতে আন্দোলনরত আদি ভূমি সন্তানদের এখনও আইনের আশ্রয় জোটেনি।
সর্বশেষ গত সোমবার সাঁওতালরা সরকারি ত্রাণ ফিরিয়ে দিয়েছেন। ত্রাণ নয় তাঁরা পূর্ব পুরুষের ভূমি ফেরত চান। সেদিন গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দেড় শ’ পরিবারের জন্য ত্রাণ নিয়ে মাদারপুর গির্জার সামনে সারাদিন অপেক্ষা করে থাকলেও কোন সাঁওতাল পরিবার ত্রাণ গ্রহণ করেন নি।

অন্যদিকে একইদিন ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে শিল্পসচিব মোঃ মোশারলফ হোসেন ভূঁইয়া বলেছেন, কাউকে চিনিকলের জায়গা দখল করে থাকতে দেয়া হবে না। তবে সরকার সাঁওতালদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করবে।
উল্লেখ্য, ১৯৬৫ সালে গোবিন্দগঞ্জে চিনিকল প্রতিষ্ঠার সময় জমি অধিগ্রহণের চুক্তিতে বলা হয়েছিল চিনিকলের জন্য আখ ছাড়া অন্যকিছুর চাষ হলে জমি সরকারের মাধ্যমে পূর্বতন মালিকদের কাছে ফেরত দেয়া হবে। ২০০৪ সাল থেকে চিনিকলটি বেশিরভাগ সময়ই বন্ধ থাকছে। উল্লেখিত জমি বাণিজ্যিকভাবে ইজারা দিয়ে ধান, তামাক ইত্যাদির আবাদ করা হচ্ছে। এই যুক্তিতেই সাঁওতালরা পূর্বপুরুষের জমি ফেরত চাইছিলেন। সংসদীয় কমিটিও বিষটির শান্তিপূর্ণ সমাধানের সুপারিশ করেছিল। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মৌখিক আশ্বাসের ভিত্তিতে সাঁওতালরা উল্লেখিত জমিতে ঘর তোলেন। সন্ত্রাসী বহিনীর রোববারের হামলার সময় সাঁওতালরা তা প্রতিরোধ করার চেষ্টা করেন। এ সময় পুলিশ গুলি চালায়। সাঁওতালদের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়। এসব ঘটনায় ইউনিয়ন পরিষদের স্থানীয় চেয়ারম্যান ও সাংসদের ইন্ধনের খবর বিভিন্ন গণমাধ্যমে এসেছে।
অবিলম্বে এই হত্যাযষ্ণ ও ধ্বংসলীলার সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচার হওয়া উচিত। একই সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকেই বিষয়টির শান্তিপূর্ণ সমাধানে সচেষ্ট হওয়া উচিত।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

সম্পাদক:

বিপুল রায়হান

১৩/২ তাজমহল রোড, ব্লক-সি, মোহাম্মদপুর,ঢাকা-১২০৭, ফোন : 01794725018, 01847000444 ই-মেইল : info@jibonthekenea.com অথবা submissions@jibonthekenea.com

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত জীবন থেকে নেয়া ২০১৬ | © Copyright Jibon Theke Nea 2016

To Top
Left Menu Icon
Right Menu Icon